fbpx
You are here
Home > ফুটবল > শক্তিশালী বার্সাকে ন্যুক্যাম্পেই রুখে দিল স্ল্যাভিয়া!

শক্তিশালী বার্সাকে ন্যুক্যাম্পেই রুখে দিল স্ল্যাভিয়া!

শক্তিশালী বার্সাকে ন্যুক্যাম্পেই রুখে দিল স্ল্যাভিয়া!

চ্যাম্পিয়নস লিগের এই মৌসুমে দ্বিতীয়বারের মতো মুখোমুখি হলো বার্সেলোনা এবং স্ল্যাভিয়া প্রাগ। প্রথমবারের দেখায় স্ল্যাভিয়ার মাঠে ২-১ গোলের জয় পেয়েছিল বার্সেলোনা। আর সপ্তাহ দুয়েক পরে গতকাল ন্যুক্যাম্পে দ্বিতীয়বারের মতো মুখোমুখি হয় দুই দল। আগের ম্যাচের ফলাফল আর ঘরের মাঠের সমীকরণ হিসেব করে স্ল্যাভিয়ার বিপক্ষে জয়টা ছিল বার্সার জন্য সময়ের ব্যাপার মাত্র। বার্সা সমর্থকেরা তো হিসেব করছিল কত বড় ব্যবধানে জিততে চলেছে তারা। তবে ম্যাচ শেষে সবার অঙ্ক মিললেও বার্সা সমর্থকদের অঙ্ক মিললো না। ঘরের মাঠেই গোল শূণ্য ড্র করে বার্সাকে রুখে দিয়েছে স্ল্যাভিয়া।

গতকাল ম্যাচের শুরুতে ফেভারিট কে ছিল তা নিয়ে নিয়ে কোন সন্দেহ ছিল না। কিন্তু খেলা শুরুর পর পালটে গেল সব হিসাব-নিকাষ। প্রতিপক্ষের মাঠে রীতিমতো অভেদ্য দেয়াল তৈরি করে রেখেছিল স্ল্যাভিয়া। বার্সার আক্রমণ ভাগে এদিন ছিলেন না লুইস সুয়ারেজ। ত্রয়ী হিসেবে ছিলেন মেসি, গ্রিজম্যান এবং ডেম্বেলে। তবে প্রথমার্ধে গ্রিজম্যান এবং ডেম্বেলেকে খুঁজেই পাওয়া যায়নি। ছিলেন নিজেদের ছায়া হয়ে।

অবশ্য ডেম্বেলে-গ্রিজম্যান নিজেদের ছায়া হয়ে থাকলেও বার্সার হয়ে প্রথমার্ধে একাই লড়াই চালিয়ে গেছেন বার্সা অধিনায়ক মেসি। ম্যাচের ৩৫তম মিনিটে পুরোপুরি একক প্রচেষ্টার এক আক্রমণে তার শট ক্রসবারে প্রতিহত না হলে গোল পেতে পারত বার্সা। এরপরে আরও একবার গোল করার সুযোগ পেয়েছিল বার্সা। তবে বার্সা ডিফেন্ডার জেরার্ড পিকের থ্রু পাস থেকে আরেক ডিফেন্ডার নেলসন সেমেদোর নেওয়া শট ফিরিয়ে দিয়েছেন স্ল্যাভিয়া গোলরক্ষক কোলার।

দ্বিতীয়ার্ধেও আগের গল্পের পুনরাবৃত্তি। মাঝমাঠের উদাসীনতার পাশাপাশি রক্ষণও ছিল এদিন নড়বড়ে। হিসেব করলে গতরাতে এই মৌসুমের সবচেয়ে হতাশজনক ম্যাচ খেলেছে বার্সা। এদিকে দ্বিতীয়ার্ধে তেমন একটা গোলের সুযোগ তৈরি করতে না পারলেও প্রথমার্ধের শেষদিকে বার্সার জালে বল জড়িয়ে দিয়েছিলেন স্ল্যাভিয়া ডিফেন্ডার মাসোপুস্ত। তবে অফসাইডের কারণে বাতিল হয়েছে সেই গোল।

দ্বিতীয়ার্ধে প্রায় সিংহভাগ সময় বল দখল করে রাখলেও গোলের তেমন সুযোগ তৈরি করতে পারেনি কাতালানরা। শেষ পর্যন্ত গোলের আশায় আনসু ফাতিকে নামান বার্সা কোচ ভালভার্দে। আর নেমেই স্ল্যাভিয়ার রক্ষণভাগকে তটোস্থ করে তোলেন তিনি। তবে বার্সা জন্য জয়সূচক গোলের দেখা তিনিও পাননি। শেষ পর্যন্ত গোল শূণ্য ড্র নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে কাতালানদের। আর খেলা শেষে সমর্থকদের দুয়ো শুনতে শুনতে ছাড়তে হয়েছে মাঠ।

এই ম্যাচ শেষে ৮ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষেই রয়েছে মেসির দল। এদিকে রাতের আরেক ম্যাচে ইন্টারকে হারিয়ে ৭ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে রয়েছে ডর্টমুন্ড। আর ৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তিনে রয়েছে ইন্টার। পরের দুই ম্যাচে বার্সার প্রতিপক্ষ ইন্টার ও ডর্টমুন্ড। তাই আপাতপক্ষে বার্সার জন্য পরের রাউন্ডে যাওয়াটা কঠিন হয়ে গেল।

ছবিঃ ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত

উপরে