fbpx
You are here
Home > ফুটবল > রদ্রিগোর হ্যাট্রিকে উড়ে গেলো গ্যালাতাসারে!

রদ্রিগোর হ্যাট্রিকে উড়ে গেলো গ্যালাতাসারে!

রদ্রিগোর হ্যাট্রিকে উড়ে গেলো গ্যালাতাসারে!

গত রাতে চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচে বড় জয় পেয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। রদ্রিগোর হ্যাট্রিকে গ্যালাতাসারেকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে লস ব্লাঙ্কোসরা। এই মৌসুমে স্যান্টিয়াগো বার্নাব্যুতে লা লিগা অভিষেকেই গোল করে রেকর্ড গড়েছিলেন রিয়াল মাদ্রিদের ব্রাজিলিয়ান তরুণ ফরোয়ার্ড রদ্রিগো। আর এবার চ্যাম্পিয়নস লিগে বার্নাব্যু অভিষেকে করে বসলেন হ্যাটট্রিক। প্রতি ম্যাচেই নিজের সামর্থ্যের প্রমাণ রাখছেন তরুণ এই ফুটবলার।

ঘরের মাঠে গতকাল গ্যালাতাসারেকে পাত্তাই দেয়নি রিয়াল মাদ্রিদ। শুরু থেকেই বল দখলে এগিয়ে ছিল লস ব্লাঙ্কোসরা। ম্যাচ শুরুর ৪ মিনিটের মাথায় রিয়ালকে লিড এনে দেন রদ্রিগো। ডিবক্সের ভেতর বল পেয়ে সামনে থাকা দুই ডিফেন্ডারকে ফাঁকি দিয়ে বারের বামপ্রান্ত দিয়ে বল জালে জড়ান তিনি। এর মিনিট তিনেক বাদে বক্সের বাঁপ্রান্ত থেকে মার্সেলোর ক্রসে হেড করে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন এই ফরোয়ার্ড। আর এই গোলে চ্যাম্পিয়নস লিগের ইতিহাসে দ্রুততম জোড়া গোলের রেকর্ড নিজের করে নিয়েছেন তিনি।

৭ মিনিটের মাথায় ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়ে এলোমেলো খেলতে শুরু করে গ্যালাতাসারে। এর মাঝে ম্যাচের ১৪তম মিনিটে টনি ক্রুসকে ফাউল করে রিয়ালকে পেনাল্টি উপহার দেয় সফরকারীরা। স্পটকিক থেকে ব্যবধান ৩-০ করেন অধিনায়ক সার্জিও রামোস। প্রথমার্ধের শেষদিকে রিয়ালের হয়ে চতুর্থ গোলটি করেন বেনজেমা। রদ্রিগোর পাসে গ্যালাতাসারে গোলরক্ষক ফার্নান্দো মুসলেরাকে পরাস্ত করতে কোন অসুবিধা হয়নি ফরাসি এই স্ট্রাইকারের।

দুর্দান্ত এক প্রথমার্ধের পর দ্বিতীয়ার্ধে গোলের চেয়ে পজেশন ধরে রাখার দিকেই বেশি মনযোগী ছিল রিয়াল। এরপরও দ্বিতীয়ার্ধে গোলের সেরা সুযোগগুলো তৈরি করেছিল জিদানের শিষ্যরাই। ম্যাচের ৮১তম মিনিটে কারভাহালের অ্যাসিস্টে রিয়ালের হয়ে ৫ম এবং নিজের ২য় গোলটি করেন বেনজেমা। ম্যাচ শেষের অতিরিক্ত সময়ে নিজের হ্যাট্রিক পূর্ণ করেন রদ্রিগো। এদিকে রদ্রিগোর মত জোড়া গোল করে রেকর্ড গড়েছেন করিম বেনজেমাও। টপকে গেছেন রিয়ালের হয়ে কিংবদন্তী আলফ্রেডো ডি স্টেফানোর চ্যাম্পিয়নস লিগের ৪৯ গোলের টালি।

ছবিঃ ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত

উপরে