fbpx
You are here
Home > আলোচিত ক্রীড়াঙ্গন > বর্ণবাদ ইস্যুতে বুলগেরিয়া কোচের পদত্যাগ!

বর্ণবাদ ইস্যুতে বুলগেরিয়া কোচের পদত্যাগ!

বর্ণবাদ ইস্যুতে বুলগেরিয়া কোচের পদত্যাগ!

দিন কয়েক আগে ইউরো ২০২০ এর বাছাই পর্বে মুখোমুখি হয়েছিল বুলগেরিয়া-ইংল্যান্ড। তবে খেলা চলাকালীন সময়ে বুলগেরিয়ার মাঠে বেশ কয়েকবার বর্ণবাদের শিকার হন ইংল্যান্ডের ফুটবলাররা। সমর্থকদের এমন আচরণে প্রথমার্ধে দুই বার খেলা বন্ধ করতে বাধ্য হন রেফারি। তবে ম্যাচ শেষে বুলগেরিয়া কোচ ক্রাসিমির বালাকভ জানিয়েছিলেন তিনি কোন বর্ণবাদী স্লোগান বা মন্তব্য শোনেননি। অবশ্য প্রমাণ মিললে ইংল্যান্ড দলের কাছে আনুষ্ঠানিক ভাবে ক্ষমা চাবেন বলেও জানিয়েছিলেন তিনি।

শেষ পর্যন্ত প্রমাণ পাওয়ায় গত সপ্তাহে ইংল্যান্ড দলের উদ্দেশ্যে ক্ষমা চেয়ে এক বিবৃতি দিয়েছিলেন বালাকভ। তবে সেই বিবৃতির পর এবার নিজের পদ থেকেও সরে দাঁড়াচ্ছেন তিনি। বুলগেরিয়ার বর্ণবাদের সাম্প্রতিক সমস্যার কারণেই পদত্যাগ করছেন বলে জানান বালাকভ। তিনি বলেন, “এভাবে কোনও ফুটবল দল চলতে পারে না। গুটিকয়েক সমর্থকের জন্য পুরো দেশের ভুক্তভোগী হতে হচ্ছে। ব্যাপারটি নিয়ে আমি খুবই লজ্জিত, এজন্যই আমি পদত্যাগ করছি।”

কোচের মত সমর্থকদের ব্যবহারে হতাশ বুলগেরিয়ার ফুটবলের অনেকেই। বুলগেরিয়ার অধিনায়ক ইভেলিন পোপোভ তো ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ চলাকালীন সময়েই বর্ণবাদী সমর্থকদের সাথে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময়ে লিপ্ত হন। ম্যাচ শেষে ইংলিশ ফুটবলারদের কাছ থেকে এ নিয়ে প্রশংসাও পেয়েছেন পোপোভ। এদিকে দেশটির সর্বকালের সেরা ফুটবলার রিস্টো স্টইচকভ এক টকশোতে বলেন, “এ ধরনের সমর্থকদের কোনো স্টেডিয়ামেই খেলা দেখতে যেতে দেওয়া উচিত না। বা এর চেয়েও কড়া শাস্তি দেওয়া উচিত তাদের।”

ইতিমধ্যে বুলগেরিয়া কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছে বর্ণবাদীদের বিরুদ্ধে। জানা গেছে এখন পর্যন্ত ১৬ জনকে গ্রেফতার করেছে তারা। তবে স্পর্শকাতর এই বিষয়টি নিয়ে বুলগেরিয়ান ফুটবলে এখন টালমাটাল অবস্থা। উল্লেখ্য, এর আগে বুলগেরিয়ান ফুটবল ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছিলেন বরিস্লাভ মিহায়লোভ। এবার পদত্যাগ করলেন প্রধান কোচ বালাকভ।

ছবিঃ ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত

উপরে